সর্বশেষ সংবাদঃ

গোল্ডমেডেলপ্রাপ্ত শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান জুলফিকার রহমান শান্ত জনপ্রতিনিধিত্ব করতে চান জেলা পরিষদে

সোনাতলা (বগুড়া) প্রতিনিধি: বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার পাকুল্লা ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান ( এলজিএসপি কার্যক্রমে শ্রেষ্ঠত্বের জন্য বগুড়া জেলার শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান হিসাবে গোল্ডমেডেলপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান) ও বগুড়া জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক জুলফিকার রহমান শান্ত সদস্য হিসাবে জনপ্রতিনিধিত্ব করতে চান বগুড়া জেলা পরিষদে। তিনি আসন্ন জেলা পরিষদ নির্বাচনে বগুড়া জেলা পরিষদের ১২ নং ওয়ার্ডে ( সোনাতলা) সদস্য হিসাবে নির্বাচন করার জন্য ইতোমধ্যেই প্রস্তুতি শুরু করেছেন।
জুলফিকার রহমান শান্ত ২০১৬ সাল থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত সফলতার সাথে সোনাতলা উপজেলার পাকুল্লা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক জুলফিকার রহমান শান্ত সোনাতলার হরিখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র থাকা অবস্থায় ১৯৯৫ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের হরিখালী উচ্চ বিদ্যালয় শাখার সভাপতি নির্বাচিত হন। তিনি ১৯৯৮/৯৯ সেশনে বগুড়া সরকারি কলেজ (সাবেক বণিজ্যিক মহাবিদ্যালয়) ছাত্র সংসদ নির্বাচনে ছাত্রলীগ মনোনিত প্যানেল থেকে জিএস নির্বাচিত হন। তিনি ২০০২ সালে বগুড়া শহর ছাত্রলীগের সভাপতি মনোনিত হন। এরপর ২০০৫ সালে বগুড়া জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন। ২০১৩ সালে তিনি বগুড়া জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সম্পাদক মনোনিত হন এবং ২০১৮ সালে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ২০১৬ সালে তিনি সোনাতলা উপজেলার পাকুল্লা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নে নৌকা প্রতিক নিয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করেন এবং বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন। নির্বাচিত হওয়ার পর তিনি সরকারের আনুকুল্যে বিশেষ বিশেষ বরাদ্দ এনে অবহেলিত যমুনা তীরবর্তী পাকুল্লা ইউনিয়নের ব্যাপক উন্নয়ন সাধন করেন। বঙ্গবন্ধু শিশু-কিশোর মেলা বগুড়া জেলা শাখার উপদেষ্টা, রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির আজীবন সদস্য, বগুড়া জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাহী সদস্য, বগুড়া শহীদ তোতা স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক, পদ্মপাড়া লুৎফর রহমান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য জুলফিকার রহমান শান্ত আগামী জেলা পরিষদ নির্বাচনে সোনাতলা উপজেলা থেকে সদস্য পদে নির্বাচন করতে ইতোমধ্যেই গণসংযোগ শুরু করেছেন। দোয়া কামনা করছেন ভোটারদের ও সাধারণ জনগণের।
এ ব্যাপারে জুলফিকার রহমান শান্ত জানান, ‘২০১৬ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত আমি চেয়ারম্যান হিসাবে আন্তরিকতার সাথে পাকুল্লা ইউনিয়নের মানুষের সেবা করেছি । আমি ২০২১ সালে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার বিষয়ক কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ডের সিদ্ধান্তকে শ্রদ্ধা জানিয়ে পাকুল্লা ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করি। এলাকার গণমানুষের দাবীর কারণে আমি আগামী জেলা পরিষদ নির্বাচনে ১২ নং ওয়ার্ডে ( সোনাতলা উপজেলা) সদস্য পদে নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি। সম্মানিত ভোটারদের ভোটে নির্বাচিত হলে আমি সত্যিকার অর্থে সোনাতলাকে একটি মডেল উপজেলায় পরিণত করতে সর্বত্মকভাবে সচেষ্ট থাকবো।’

Check Also

বগুড়ার ৩টি হত্যা মামলার আসামীকে জবাই করে হত্যা

মোঃ আব্দুল ওয়াদুদ,বগুড়া প্রতিনিধিঃ বগুড়ার কুখ্যাত সন্ত্রাসী, ৩টি হত্যা মামলার আসামী ও বালু ব্যবসায়ী আখের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.